September 13, 2016

আমার জীবনের কুড়িটি জ্বলন্ত সমস্যা



১। তেষ্টা মেটার আগেই চা ফুরিয়ে যাওয়া। প্রত্যেকবার।

২। চায়ের দুধ, চিনি, নুন, বয়ামে কখনওই প্যাকেটের পুরোটার জায়গা না হওয়া। বাকিটুকু গার্ডার পেঁচিয়ে রাখতে বাধ্য হওয়া। চোখের সামনে রাখলে দৃশ্যদূষণ, আড়ালে রাখলে বিস্মৃতি। 

৩। ওষুধ ফুরোনোর আগেই অসুখ সেরে যাওয়া। তারপর সারাবাড়ি ওষুধের গোরস্থান।

৪। বাড়িতে প্লাগ পয়েন্টের থেকে গ্যাজেট বেশি থাকা।

৫। অর্চিষ্মান আর আমার ফোন, ল্যাপটপ ইত্যাদির চার্জ সর্বদা, সর্বদা, একসঙ্গে ফুরোনো। এবং তখন ওপরের সমস্যাটা প্রকটতর হয়ে ওঠা।

৬। আশু দরকারি কাজটা ছাড়া পৃথিবীর সব কাজ করতে ইচ্ছে করা। 

৭।  পড়তে শুরু করা বইটা ছাড়া পৃথিবীর অন্য সব বই পড়তে ইচ্ছে করা। 

৮। সব খাবার গরম হয়ে যাওয়ার পর সিনেমা বেছে বাফারিং-এ দেওয়ার কথা মনে পড়া। তখন হয় সিনেমা বাছতে গিয়ে খাবার ঠাণ্ডা কর, নয় সিনেমা চালাতে চালাতে খাওয়া শেষ।

৯। বাঁধানো ছবির তুলনায় দেওয়ালে পেরেক কম পড়া। নিজেরা মারার এলেম নেই। আর পেরেক মারার জন্য এখনও লোক ভাড়া পাওয়া যায় না। হাঁ করে বসে থাকা কখন বড় কিছু খারাপ হবে - কলিং বেল, গিজার - তখন ইলেকট্রিশিয়ানকে ডেকে পেরেক পুঁতিয়ে নেওয়ার জন্য। 

১০। ইলেকট্রিশিয়ান আসা থেকে চলে যাওয়া পর্যন্ত দুজনের মাথা থেকে পেরেকের ব্যাপারটা সম্পূর্ণ বেরিয়ে যাওয়া।   

১১। মুদির দোকানে হোম ডেলিভারির অর্ডার দিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা পথ চেয়ে থাকা। 

১২। অর্ডার দেওয়ার পাঁচ মিনিট পর ফোন করে একটা ভুলে যাওয়া আইটেম জুড়ে দেওয়ার কথা বললে শোনা, “দিদি, এক্ষুনি আপনার মালটা বেরিয়ে গেল।” 

১৩। ঠিক সে সব ক্ষেত্রেই নুন দিয়েছি কি না ভুলে যাওয়া, যে সব ক্ষেত্রে চেখে দেখা সম্ভব নয়। মাংস ম্যারিনেট করতে দিয়ে, ডিম ফেটানোর পর।

১৪। রিল্যাক্সেশন পুরো হওয়ার আগেই ভিডিও গেমের লাইফ ফুরিয়ে যাওয়া।

১৫। দিন ফুরিয়ে গেলেও ইউটিউবে দেখার মতো ভিডিও না ফুরোনো। 

১৬। সুবিধেজনক দিকে পড়ার সমান সুযোগ থাকলেও জিনিসপত্রের সর্বদা খাটের সেদিকে পড়া যেদিকে হাত ঢোকানোর জায়গা নেই। 

১৭। একটা হারানোর পর অনেক খুঁজে না পেয়ে শেষমেশ অন্যটা ছুঁড়ে ফেলে দেওয়ার চব্বিশঘণ্টার মধ্যে হারিয়ে যাওয়া দুলটা বেরিয়ে পড়া। 

১৮। ইন্টারনেটে যাদের দেখলে ব্লাডপ্রেশার বেড়ে যায়, তাদের খবরই সবথেকে বেশি নিতে ইচ্ছে করা।

১৯। উল্টোদিক থেকে চেনা লোক আসতে দেখলে তার উপস্থিতি অ্যাকনলেজ করা মোক্ষম মুহূর্তটা চিহ্নিত করতে না পারা। সবসময়েই টু আর্লি, নয়তো টু লেট।

২০। অনেক ভেবেও কুড়ি নম্বর অসুবিধেটা মনে করতে না পারা। এবং এটা জানা যে পাবলিশ করার কুড়ি সেকেন্ডের মধ্যে আমার জীবনের জ্বলন্ততম সমস্যাটা মনে পড়বে যেটা এই লিস্টে অনুপস্থিত।  



30 comments:

  1. ১. ডের কাপ চা নিয়ে বসো।
    ২. মায়ের সাথে চরম মিল, বোধহয় সব বাঙালি বাড়িতেই।
    ৩. এটি আবার আমার সাথে মিল। মাঝে মাঝে ভাবি থাকুক না পরের বার কাজে লেগে যাবে।
    ৪. এই সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে।
    ৫. দুজনের চার্জিং টাইম ওলট পালট করে দাও, কেউ সকালে কেউ বিকেলে।
    ৬. এটিও।
    ৭. ছোট থেকেই, বিশেষ করে ইতিহাস পড়ার সময় হয় অঙ্ক কিনবা কেমিস্ট্রি পড়তে ইচ্ছে করত।
    ৮-১৩.
    ১৪. ক্র‍্যাক খোঁজার চেষ্টা করি। না পেলেই মেশিন থেকেই আনইন্সটল করে দিই।
    ১৫. কিছু করার নেই।
    ১৬. খাটের তলায়(দেওয়ালের দিক করে) স্কেল,পেন্সিল ইত্যাদি পড়লে বুনুকে নাহয় পাশের বাড়ির ভাগ্নিকে ডাক দিতে হয়।
    ১৭. অন্যটা ফেলিনা, তবে যখন তার কথা ভুলে যায় তখন পাই ও খুব আনন্দিত হয়। (সবথেকে বেশি হয়েছিলাম ক্লাস ১০ এর বাংলা বই এর ভিতর ১০০ টাকা পেয়ে তাও এইচ.এস এর পরীক্ষার পর)।
    ১৮.
    ১৯. এটা হয় না।
    ২০. আচ্ছা মনে পড়ল?


    (কমেন্ট করার পদ্ধতি টা বুঝতে পারলাম, অত ক্লিক না করেও হচ্ছে)

    ReplyDelete
    Replies
    1. গুড, অনুজিত। তোমার পয়েন্টগুলো পড়ে ভালো লাগল। দেড় কাপ চায়ের আইডিয়াটা দুর্দান্ত। কাজে লাগাতেই হবে। থ্যাংক ইউ।

      Delete
  2. Onekgulo mile jacche. :-)
    Tumi sharodiya pujo shonkhya peye giyecho tai na Kuntala? Anondomela dekhchi side bar e. Ami ekhono payi ni.

    ReplyDelete
    Replies
    1. ইয়ে, ওটা আমি অনলাইন পেয়েছি, শর্মিলা। দেশ-টা কিনব, সেটা এখনও আসেনি।

      Delete
  3. ওটা দুল!
    আমি যেকোন জিনিস হাড়িয়ে যাওয়া ভেবে কমেন্ট করে ফেলেছি।

    ReplyDelete
  4. উল্টোদিক থেকে চেনা লোক আসতে দেখলে তার উপস্থিতি অ্যাকনলেজ করা মোক্ষম মুহূর্তটা চিহ্নিত করতে না পারা। সবসময়েই টু আর্লি, নয়তো টু লেট।

    e jinis hobei hobe amar sathe,ki ar korbo

    মুদির দোকানে হোম ডেলিভারির ....mojay acho,mudir dokan e ghore die jachche jinis..ami hapiye jai rojkar jinis kinte kinte..ar bhuleo jai obbossoi kichu na kichu..

    prosenjit

    ReplyDelete
  5. দেশ-টা কিনব, সেটা এখনও আসেনি।

    anandolok ta kinte paro,prachando hasir ekta uponyas ache...baki kissu nai...fashion tashion chobi chaba sob bekar...tobe oi ekta uponyas kihub bhalo..sreejat er lekha..khub e mojar..sugest korlam..

    prosenjit

    ReplyDelete
    Replies
    1. আনন্দলোক বাদে সবকটা দেখলাম... মনে হচ্ছে আনন্দবাজার পত্রিকা শারদিয়া টাই সবচে ভালো। দেশ ও বেশ হয়েছে।

      Delete
  6. ওহ, পড়ে দেখব তাহলে। মুদির দোকানে জিনিস কিনতে গিয়ে মনে না পড়াটা অবশ্যম্ভাবী। আমি তো সব লিস্টে লিখে নিয়ে গিয়ে শেষমেশ লিস্ট দেখতে ভুলে যাই।

    ReplyDelete
  7. Uff. Number 2 ta amar jeeboneo jolonto somosya. Kichutei baagey ante parchhi na. Chokher araley rakhlei sobkichu bhule jai. Tokhon abar kine ani. Tarpor dekhi taaker pechhon dikey rubber band lagano packet packet moshla pore achhe. Foley, bari bhorti half-packet dhone guro, jeere guro, maay posto porjonto. 3 packet tejpata kalkei khuje peyechhi, rannaghorer bibhinno kona theke. Sugrihini ar konodin hotey parlam na. :(

    ReplyDelete
    Replies
    1. সিরিয়াসলি, বিম্ববতী। সবথেকে খারাপ হচ্ছে এমন জিনিস কেনা যেগুলো কোনওদিন ব্যবহার হবে না। আর আজকাল তো লুজ কিছু পাওয়া যায় না। সব হাফ কেজির প্যাকেট। পা ভাঙার পর প্যান্ট্রিতে একজন সাদা তিল খেতে বলেছিল, হাড় শক্ত করার জন্য। হাফ কেজি তিলের প্যাকেট কিনে এনেছিলাম। বলাই বাহুল্য খাওয়া হয়নি। ও দিয়ে কী করব আমি জানি না।

      আমি তো আজকাল ঠিক করেছি, ভুল করে নতুন কিনে ফেললে পুরোনোটা ফেলে দেব। সে যত খারাপই লাগুক না কেন।

      Delete
    2. tomar tilta halka roast kore torkarir opar chhoriye dite paro. besh bhalo lage khete. noyto til bata diye paturio korte paro

      Delete
    3. দ্বিতীয় রান্নাটার নাম শুনেই গায়ে কাঁটা দিচ্ছে। তার থেকে ওই রোস্ট করে ছড়িয়ে দেওয়াই ভালো। থ্যাংক ইউ, চুপকথা।

      Delete
    4. are dwityio ta aro easy. Coffee grinder til, sorshe, posto eksathe bete r tar sathe kanchalonka bata, nun, chini r sorsher tel diye ekta paste kore nao. tarpor macher gaye (ami obossyo kima diyeo kori) makhiye puro byaparta kolapatay (obhabe lau, kumro ja pata pabe, tar o obhabe aluminium foil) joriye felo. jodi amar moton hao, tahole barite mota suto thakbe na, sekhetre dhar gulo staple kore diyo. academic barite stapler thakbei :) tarpor oi stapled byaparta ekta sandwich maker er modhye dhukiye min 10 toast kore felo. ilish ba salmon hole min 10 e hoye jabe.. kima hole min 20.

      Delete
    5. kotha dichhi suru theke sesh maximum adhghontar beshi lagbe na

      Delete
    6. ওহ আচ্ছা, তুমি বুঝিয়ে বলার পর ব্যাপারটা ডুয়েবল মনে হচ্ছে, চুপকথা। চেষ্টা করব। করলে জানাব নিশ্চয়। থ্যাংক ইউ।

      Delete
    7. asha kori porer kono ekta post e tomar prochestar golpo dekhte pabo :)

      Delete
    8. হাহা, দেখা যাক।

      Delete
  8. sabgulo problem universal tai byajar hoyo na. ami to oi kacha mangso ar kacha dimo chekhe dekhi, ki korbo, jar oto bhulo mon tar borong salmonella chete okka paoaee sreyo.

    Tomar lekha e du bochhore sobee porechhi, comment deoa hayni!

    Amar duto puchkepuchki hoyechhe gatobachhor. Oder niye byasto, eka hate jerbar...


    Manaswita

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে কনগ্র্যাচুলেশনস, মনস্বিতা।

      Delete
  9. জমিয়ে দিয়েছো কুন্তলাদি। তবে মাংস ম্যারিনেট করার সময় লবন দেওয়ার কথা মনে না থাকলে চেখে দেখা যেতে পারে। Bear Grylls কে টক্কর দিয়ে নতুন শো করার আমন্ত্রন পেতে পারো।

    ReplyDelete
    Replies
    1. যাক, বিয়ার গ্রাইলসের নামটা জানা হয়ে গেল। থ্যাংক ইউ, অরিন্দম।

      Delete
  10. তিলের বড়া বানাও। ডেসিকেটেড কোকোনাট, রাইস বা কর্নফ্লাওয়ার, তিল, নুন লংকাকুচি অল্প জল. চটকে মেখে বড়া বানাও, স্লো আঁচে শ্যালো ফ্রাই করো। মুচমুচে বড়া টপাটপ মুখে চালান করো।

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে এইটা বেশ ম্যানেজেবল মনে হচ্ছে। করলে নিশ্চয় জানাব, অদিতি।

      Delete
  11. হাহাহা দারুন মজা পেয়েছি পড়ে

    ReplyDelete
    Replies
    1. ধন্যবাদ, ধন্যবাদ।

      Delete
  12. Hahaha khub mojar.. Onek gulo amar experience nei.. Jemon mudir dokan r home delivery.. Tobe marinated mangso Ami chekhe dekhi :) Amar anandamela ache.. Desh/anandabazar konta bhalo go? Til diye chicken Ba pakora kora jete pare..

    ReplyDelete
    Replies
    1. আমার আনন্দবাজার অর্ধেক পড়া হয়েছে, দেশ এখনও হাতে পাইনি। পেলে পড়ে বলব। তিলের আরেকটা আইডিয়া দেওয়ার জন্য থ্যাংক ইউ।

      Delete
  13. কুন্তলা দি ... অনেক ভালোবাসা। কত্তদিন বাদে তোমার লেখা পড়ছি, দারুন লাগছে। তোমার লেখাও আমার কাছে nostalgia .. রু

    ReplyDelete
    Replies
    1. ওরে বাবা, এ যে সত্যিই অনেক অনেক দিন পর। থ্যাংক ইউ, রু।

      Delete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.