August 20, 2013

গোলে শট


জার্মানিতে এসে থেকে যতজন মহিলার সঙ্গে আলাপ হয়েছে তাঁদের অন্তত সত্তর শতাংশ ফুটবল খেলেন, খেলছেন, বা খেলেছেন কখনও। খেলা মানে ক্কচিৎকদাচিৎ বিকেলবেলা পাড়ার দাদাদের সঙ্গে মাঠে নেমে ছোটাছুটি করা নয়, রীতিমত ক্লাবে নাম লিখিয়ে খেলা। পাড়া, জেলা, শহর, রাজ্য, দেশ---এ’সবের কোনও একটার ফুটবল দলের নিয়মিত প্রতিনিধিত্ব করা। তাদের মধ্যে একজন হল হাইডি। বেতের মতো চেহারা, শান্ত হাসি, ঈষৎ বিষণ্ণ চোখ। এমনিতে চুপ করে থাকে, কিন্তু সেমিনার শেষে এমন শক্ত শক্ত প্রশ্ন করে যে এসি ঘরে দাঁড়িয়েও প্রশ্নকর্তার ঘাম ছুটে যায়।

সেদিন হামবুর্গের হোটেলে বসে লাঞ্চ খাচ্ছি, এমন সময় হাইডি হঠাৎ জিজ্ঞাসা করল, “মাল্টেকে চেন?”

“চিনি বৈকি। মাল্টেই তো আমাদের প্রোজেক্টের ব্যাপারস্যাপার শুরু থেকে দেখছে।” বললাম আমি। যেটা বললাম না সেটা হচ্ছে মাল্টে আমাদের মহিলামহলের বেশির ভাগেরই, বিশেষ করে ক্যামিলার, মন জয় করেছে। ক্লাস চলাকালীন মাল্টে মাঝে মাঝে এসে সেমিনাররুমের দরজা খুলে উঁকি মারলে সকলেই ক্যামিলার দিকে তাকিয়ে একগাল হেসে ভুরু নাচায়। 

তুমি মাল্টেকে কী করে চিনলে জিজ্ঞাসা করায় হাইডি বলল, কী একটা কাজে নাকি ওর মাল্টেকে ই-মেল করার দরকার হয়েছিল। সে ই-মেলের জবাবে কাজের কথার শেষে মাল্টে হাইডিকে জিজ্ঞাসা করেছে, এই হাইডিই সেই হাইডি কিনা যে গত শনিবার ম্যাচে ফ্রি-কিকে গোল দিয়েছে।

গ্লাসের তলায় অবশিষ্ট চকোলেট মুসের অবশিষ্টাংশ চামচ দিয়ে খোঁচাতে খোঁচাতে মুচকি হেসে হাইডি বলল, “হি ওয়াজ ইন দ্য ওয়াল, ইউ নো।”

আমার হাইডিকে ফ্রি-কিকে গোল করা নিয়ে অভিনন্দন জানানো উচিত ছিল নিশ্চয়, কিন্তু আমি সে সব ভুলে গিয়ে একবিঘৎ হাঁ করে জিজ্ঞাসা করে বসলাম, “ওরে বাবা, তোমরা ছেলেদের এগেনস্টে খেল নাকি?”

হাইডি হেসে ঘাড় নাড়ার পর সবে ভাবছিলাম জিজ্ঞাসা করব রেগুলার কত গোল খেয়ে হারো, ও আমার মনের কথা বুঝে ফেলে নিজেই উত্তরটা দিয়ে দিল।

“অ্যান্ড সামটাইম্‌স্‌ দে লুজ।”

টেবিলের আলোচনা বিভক্ত বার্লিন থেকে ছেলেমেয়ের ফুটবল খেলায় ঘুরে গেল। টেবিলে জার্মানি আর ভারত ছাড়াও ইজিপ্ট ছিল, তারা পত্রপাঠ মাথা নেড়ে বলল তাদের দেশে মেয়েরা মেয়েদের সঙ্গেই ফুটবল খেলে না, ছেলেদের সঙ্গে খেলার তো প্রশ্নই নেই। আমরা হাইডিকে নানারকম প্রশ্ন করে উত্ত্যক্ত করতে লাগলাম। ছেলেদের সঙ্গে খেলতে ভয় লাগে কি না, ফাউল হলে বেশি ব্যথা লাগে কি না। হাজার হোক গায়ে জোর তো ওদের বেশি। টেবিলের মাথা থেকে অ্যামবাসাডর ওয়েস্টডিকেনবার্গ টিপ্পনী কাটলেন, “সে ভাই, মেয়েদের খেলাতেও জব্বর ফাউল হয়। ছেলেদের একা দোষ দিলে চলবে না।” শুনলাম জার্মানিতে ছেলের দল বনাম মেয়ের দলের খেলার সংখ্যা ইদানীং বাড়ছে, কিন্তু ছেলেমেয়ের মিক্সড টিম এখনও হাতে গোনা। যদিও হাইডি সে’রকম একটা দলের হয়ে খেলেই মাল্টের দলকে গোল খাইয়ে এসেছে। 

সত্যিই কি কেউ কিছু মনে করে না, মুখে চাপা দিয়ে হাসে না? হাইডি বলল, প্রথম প্রথম যদি বা একটু হেলাছেদ্দার ভাব থেকেও থাকে, খেলতে নেমে ছেলেদের পা থেকে একবার বল কেড়ে নিলেই হাসাহাসি বন্ধ করে বাপ্‌বাপ্‌ বলে সবাই সিরিয়াসলি খেলতে শুরু করে দেয়।

ইট্‌স্‌ অল অ্যাবাউট স্কিল, ইউ নো।

খেলার কথা শুরু হতে হাইডির মুড এসে গিয়েছিল। ও বলল, তবে কিছু তফাৎ তো থাকেই। স্টাইলের তফাৎ। মেয়েদের খেলায় বল পাসের প্রাধান্য অনেক বেশি। ছেলেরাও পাস খেলে, কিন্তু চান্স পেলে গোলে কিক নিতে ছাড়ে না। সেদিকে আবার মেয়েদের উৎসাহ কম। বল পায়ে এলে সেটা অন্যের পায়ে এগিয়ে না দিয়ে, “গোল্লায় যাক সবাই” বলে নিজেই গোলের দিকে ছুটে যাওয়ার কলজেটা মেয়েরা এখনও জোগাড় করতে পারেনি।

তবে এতখানি যখন হয়েছে, বাকিটাও হয়ে যাবে। এবার খালি সময়ের অপেক্ষা।

আমি আর আমার ফুটবলার বন্ধু হাইডি
   
     

28 comments:

  1. এটা দেখেই আমার মেয়েদের ফুটবল সম্পর্কে ধারণা বদলে গেছিল...
    http://www.youtube.com/watch?v=UvEobeNfGcc

    ReplyDelete
  2. I wonder maximum chhobitei tomar shudhu ei kurti-tai kano porone!!!

    ReplyDelete
    Replies
    1. এই কুর্তিটা আমার খুব পছন্দের মনস্বিতা। আর তাছাড়া তেইশ কেজির চক্করে পড়ে আমি খুব বেশি জামাকাপড় আনতে পারিনি, যে ক'টা এনেছি সেগুলো ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে পরছি।

      Delete
    2. ei kurti ta kintu daroon.

      Delete
    3. থ্যাংক ইউ শম্পা।

      Delete
  3. ইয়ে, হাইডির (ইমেল) আইডি...

    ReplyDelete
    Replies
    1. হাহা, ভালো কবিতা হয়েছে কিন্তু।

      Delete
  4. lekhata porei ato bhalo lagche,khela dekhle nischai aro anander byaper hobe!tui akdin match dekhe aye or sange ....chabitao bhalo

    ReplyDelete
    Replies
    1. ম্যাচ দেখার সময় থাকলে বর্তে যেতাম রে তিন্নি...

      Delete
  5. দি, তুমি কবে নামছ মাঠে? দেশের নাম উজ্জ্বল করতে হবে তো নাকি? :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. আমি মাঠে নামলে দেশ আতংকিত হয়ে পড়বে আবির, বিশ্বাস কর।

      Delete
  6. 'হাইডি' r kotha pore darun laglo. “গোল্লায় যাক সবাই” bolar sahos nischoi ora khub taratari orjon kore phelbe :-) . chhobitao khub bhalo hoechhe.

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ ইচ্ছাডানা। হাইডির কথা জানি না, আমার যে ওই সাহসটা কবে হবে, আমি সে আশায় আছি।

      Delete
  7. "এবার খালি সময়ের অপেক্ষা।"

    thik thik...as they said in beijing "the revolution has begun and there is no turning back" :)

    ReplyDelete
  8. "বেতের মতো চেহারা, শান্ত হাসি, ঈষৎ বিষণ্ণ চোখ।" -- যথাযত বর্ণন। তবে হাইডি-কে দেখতেও ভালো। আর ওনাকে দেখতে আমার এক বন্ধুর মতো।

    ReplyDelete
    Replies
    1. হ্যাঁ হাইডি খুব সুন্দর, সৌমেশ।

      Delete
  9. ব্যস, আর কি চাই? এবার আপনিও মাঠে নেমে পড়ুন তাহলে! এই সুযোগে একটা নতুন খেলা শেখা হয়ে যাবে।

    ReplyDelete
    Replies
    1. হ্যাঁ সেইটাই বাকি আছে।

      Delete
  10. dekho, durdarakka goal e shot na diye pass diye khela ta kintu jothesto skill er bepar... ki bolo..

    ReplyDelete
    Replies
    1. সে তো বটেই গোবেচারা, ভয়ানক জরুরি স্কিলের ব্যাপার। কিন্তু আমি বেশির ভাগ সময়েই পাস খেলি, স্কিলফুল খেলোয়াড় বলে নয়, গোলে শট নেওয়ার সাহস নেই বলে। গোলে বল মারব, তারপর গোল হবে না, সবাই আমাকে দেখে হাসবে...এই ধরণের চিন্তাভাবনা আরকি।

      Delete
  11. amar mohila der football khelte dekhar obhigyota o ekhane esei, golpo ta boli. amader economics dept er akta team ache, soccer er inter-dept championship e khele, naam holo "Corner Solution" :P (jodio ei naam koronei sob protibha khoroch hoye jawate khelay khub akta joyer mukh dekha jaay na, ak ak match e 10-15 ta goal kheye hare :( ) to ei team ta sorbo orthei mixed team, ak german, dui russian, dui irani, ak turkish, aro mexican, bulgarian ebong khan dui american er somonwoye gora, tar modhye tin ti meye! prothom shunei ha hoye gechilam, khela dekhte gechilam khub utsahe.. bulgarian meye ti khub i valo kheleo.. amar khelay utsaho dekhe amakeo pray namiye dey ar ki!anek kore bojhate holo j ami khub bhalo dorshok, motei kheloar noi :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. নামটা কিন্তু সিরিয়াসলি জব্বর তোমাদের ফুটবল টিমের স্বাগতা। কার মাথা থেকে বেরিয়েছিল? তাকে আমার হয়ে স্যালুট জানিয়ে দিয়ো। আরে খেলতে পারতে কিন্তু...একটা বিদ্যে শেখা হয়ে যেত।

      Delete
    2. football khele ronaldo der bhaat marte chaina kina :P

      Delete
    3. হাহাহা, এটা ভালো বলেছ কিন্তু স্বাগতা। গুড ওয়ান।

      Delete
  12. Bah! erokom meye amar daruun pochonder!

    Aar footballer, kintu kirom shanto chehara dyakho! bhison mishti.

    ReplyDelete
    Replies
    1. সুমনা, আমিও তোমার মতো ভেবেছিলাম, যে ফুটবল খেললেই নির্ঘাত ভয়ানক জাঁহাবাজ চেহারা হবে। ভুল একেবারে ভেঙে গেছে। শুধু হাইডিই নয়, আমাদের একজন প্রফেসর আছে, রেগিনা, তিনি স্টেট লেভেলে খেলেছেন অথচ চেহারা দেখলে মনে হবে জীবনে বই ছাড়া আর কিছুর দিকে মুখ তুলে চাননি।

      Delete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.