September 08, 2018

নয়



বেশ ক’মাস আগে অবান্তরের এক পাঠক বলেছিলেন অবান্তর নিয়ে লিখতে। শুরুটুরু কী করে হল, পাঠকরা কবে কোন পথে এলেন এইসব। মূলত আলস্যজনিত কারণেই লিখে উঠতে পারছিলাম না, তাছাড়া পোস্টটা পোস্টপোন করার একটা মোটামুটি শক্তপোক্ত কারণ জুটিয়ে নিয়েছিলাম। অবান্তরের জন্মদিন ছিল মাস তিন-চার বাদেই। অবান্তর নিয়ে লেখার জন্য অবান্তরের জন্মদিনই উপযুক্ত অবসর মনে হয়েছিল। 

জন্মদিন আসতে দেরি আছে, কাছাকাছি এলে পোস্ট শুরু করা যাবে’খন ভেবে মনের আনন্দে স্ক্রাবি ডাবি খেলছিলাম। আজ দুপুরে হঠাৎ কী মনে হল, জন্মদিন কাছাকাছি এসে গেছে এবার অন্তত অবান্তরসংক্রান্ত পোস্টের প্রথম খসড়ায় হাত দেওয়া উচিত, ক্যালেন্ডার খুললাম। সন্দেহ ঠিক, অবান্তরের জন্মদিন কাছাকাছি এসে গেছে, মাস সপ্তাহ বা দিন নয়, এই মুহূর্তের সঙ্গে অবান্তরের জন্মদিনের দূরত্ব মোটে কয়েক ঘণ্টার।

আগামীকাল, নয়ই সেপ্টেম্বর, অবান্তর নয় পূর্ণ করে দশে পা দেবে। 

প্যানিক হয়নি কারণ এই পোস্টটা লেখার যা যা মালমশলা, অবান্তর শুরুর সময় কী হয়েছিল, কী করে হয়েছিল সবই ছবির মতো মনে আছে। যদিও সেই ছবিটা বার বার উল্টেপাল্টে দেখার মতো ছবি নয়। আনন্দে, ব্যস্ততায়, পরিপূর্ণতার তুঙ্গে থাকতে কেউ ব্লগ খুলে ছোটবেলার সরস্বতীপুজো নিয়ে রচনা লিখতে শুরু করে না। আমিও করিনি। রীতিমত কোণঠাসা সময়েই আমি অবান্তর শুরু করি। বুকভরা হতাশা ছিল, ছিল ঘড়িভরা সময়। আর গুগলের বদান্যতায় ব্লগস্পটের ফ্রি স্পট। 

শুধু লিখলেই তো হবে না, পাঠক জোগাড় করতে হবে। কী করে করতে হবে ইন্টারনেটে সে সম্পর্কে প্রচুর টিপস ছিল, পড়ে দেখলাম বেশিরভাগ পরামর্শই আমার পক্ষে কাজে লাগানো সম্ভব নয়। একটি বাদে, সেটা হচ্ছে অন্য কারও ব্লগে নিয়মিত কমেন্ট করা। বং মমের ব্লগ অলরেডি পড়তাম, সাহস করে কমেন্ট করা শুরু করলাম। আমি নিশ্চিত, বং মমের ব্লগ থেকে অবান্তর কিছু পাঠক পেয়েছে। বাকিরা কোন পথে অবান্তরে এসেছেন আমি জানি না, তবে মোটামুটি দীর্ঘ সময় খুঁটি গেড়ে বসে থাকতে পারলে কেউ না কেউ থেমে কথা বলেই। অবান্তরের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে নিশ্চয়।

গত ন’বছরে আমার জীবনের চেহারা আমূল পাল্টেছে। অবান্তরেরও বদল ঘটেছে অনেক। সর্বপ্রধান বদল যেটা ঘটেছে সেটা হচ্ছে  'অবান্তর' শব্দটা নিজের বাকি সব অর্থ,  প্রাসঙ্গিকতা হারিয়ে আমার কাছে ’প্রপার নাউন’ হয়ে উঠেছে। খবরের কাগজে, বইয়ে, প্রতিবাদে বা প্রতিবেদনে শব্দটা যখনই দেখি, মনে হয় এই শব্দটার তো এখানে থাকার কথা নয়, এটার বাসা তো আমার ফোন আর ল্যাপটপে একটা সর্বক্ষণ খোলা ট্যাবে, বড় বড় রক্তাক্ষরে। 

অবান্তরের প্রতি আমার দৃষ্টিভঙ্গির বদল ঘটেছে। একসময় ক’জন অবান্তর পড়ল নিয়ে কাঁটা হয়ে থাকতাম, দিনের মধ্যে পাঁচশোবার স্ট্যাটস চেক করতাম, গত প্রায় বছরদুয়েক স্ট্যাটসের পেজে ক্লিক পর্যন্ত করিনি। জীবনে ব্লাডপ্রেশার বাড়ানোর লিস্টের ল্যাজ অলরেডি দেখা যায় না, অবান্তরের নাম তাতে না ঢোকালেও চলবে।

অবান্তর কেন লিখি সে প্রশ্নও নিজেকে করা বন্ধ করেছি। কারণ সেটা 'রোজ কেন দাঁত মাজি’ প্রশ্নের মতোই অবান্তর। অভ্যেসে লিখি। অভ্যেসে থাকার জন্য লিখি।

তবে ফাঁকা ঘরে একা বসে অভ্যেস করার উদ্যম আমার থাকত না। আপনারা এসেছেন, আমার সঙ্গে কথা বলেছেন, উৎসাহ দিয়েছেন। না হলে অবান্তর থাকত না। আমার সারাদিনের সবথেকে ভালোলাগা কাজটা থাকত না। প্রতিদিন সে কাজটায় গতকালের থেকে আরও একটু ভালো হওয়ার ভীষণ তৃপ্তির চেষ্টাটাও থাকত না।

অবান্তরের জন্মদিনে আপনারা আমার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানবেন।



44 comments:

  1. shuvo jonmodin obantor. Tomake peyechhilam je blog ta theke se lekha bondho kore diyechhey kintu tomar sathe jogajog ta theke gechhey

    ReplyDelete
    Replies
    1. ব্লগিং সত্যি সত্যিই অতীতের ব্যাপার, চুপকথা। তবুও তোমাদের সঙ্গে যোগাযোগ থাকাটা ভালো লাগার।

      Delete
  2. chaliye jao...khub bhalo lage tomar lekha...galpo,prem,ghatona,chotobela,nostaljia mile mishe ekdum solid...

    prosenjit

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ, প্রসেনজিৎ। অবান্তরের সঙ্গে এতদিন থাকার জন্য।

      Delete
  3. অনেক শুভেচ্ছা!স্মার্ট, ঝরঝরে কিন্তু অতি চালাকির দোষে দুষ্ট নয় এমন বাংলা গদ্য পড়ার সেরা জায়গা অবান্তর। তোমার জীবন,তোমার ভাবনাআমাদের সঙ্গে share করার জন্য অনেক ভালোবাসা।

    ReplyDelete
    Replies
    1. এই কমপ্লিমেন্টটা বড় ভালো লাগল, কাকলি। থ্যাংক ইউ।

      Delete
  4. অবান্তর যে আমাদের জন্য মোটেই অবান্তর নয়, একথা বুঝিয়ে বলা ওই দাঁত মাজার উপকারিতা বোঝানোর মতোই। বলাই যায় যে বাঘ-সিংহ তো দাঁত মাজে না, তারা কি খারাপ আছে? সেই প্রশ্নের উত্তরে যা বলার, এখানেও তাই লিখি: দাঁত মাজার পর যে ফ্রেশ ভাবটা আসে, তার কোনো তুলনা নেই। ঠিক সেভাবেই, অবান্তর পড়ার পর মনে নানা কথা, ভাবনা, অনুভূতি এসে যেভাবে আমাদের তাজা করে দেয়, তারও কোনো তুলনা নেই।
    শুভ জন্মদিন অবান্তর। ভার্চুয়াল কেক পাঠালাম।

    ReplyDelete
    Replies
    1. হাহা, থ্যাংক ইউ, ঋজু। কেকটা দারুণ ছিল। অবান্তর আর আমার পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানবেন।

      Delete
  5. Goto dubochor dhore Abantor amar jiboner obicheddo ongsho hoe geche. Obantor k jonmodiner onek suveccha. Aro sribriddhi hok, shotayu hok, ei kamona kori.

    ReplyDelete
    Replies
    1. ধন্যবাদ, সুহানি। তুমি তো আমাদের হাওড়া-ব্যান্ডেল-বর্ধমান লাইনেরই লোক, তাই না?

      Delete
    2. Ami serampore er lok. Apnar protibesi. Ekhon biyer por Howrah te.

      Delete
    3. কী কাণ্ড, এ তো একরকম পাড়ার লোকই হল।

      Delete
  6. Shubho jonmodin Abantor...amar jiboner abichchhedyo ango....pratidin ekbar pata ti na khulle dinta mone hoi sampurno holo na....amader rojkar ei gaddalika probaahe ektu onyokichhur chhonya.... apnake likhtei hobe....apnar jonyo noi amader moto pathokder jonyo....

    ReplyDelete
    Replies
    1. ধন্যবাদ, সুস্মিতা। আপনাকে অবান্তরের পাতায় দেখে চমকে গিয়েছিলাম। অবান্তরকে নিরন্তর সঙ্গ দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

      Delete
    2. chomke gechhilen keno? Kibhabe je uposthit hoyechhilam ekhon aar mone nei.

      Delete
    3. আপনাকে যে আগে দেখেছি মনে পড়ে চমকেছিলাম।

      Delete
  7. বৈজয়ন্তীSeptember 9, 2018 at 11:01 PM

    কবে কিভাবে ইন্টারনেট এতাল বেতাল ঘুরতে ঘুরতে অবান্তরে এসে পড়েছিলাম মনে নেই। ভাগ্যিস এসেছিলাম। তারপর থেকে রোজ রাত্তিরে একবার ঢুঁ মারি নতুন লেখার খোঁজে। এখন অবান্তর একটা প্রিয় অভ্যাস। এমনকি হসপিটালের বেডে শুয়েও রাত্তিরে অবান্তর পড়েছি।
    প্রিভিয়াস ক্লিক করতে করতে প্রথম বাংলা পোস্ট অবধি পড়তে সময় লেগেছিল মোটামুটি 2-3 সপ্তাহ। অফিসের ফাঁকা সময় গুলো সুন্দর কেটে যেত।

    অবান্তরের অনেক আয়ুবৃদ্ধি হোক।। আপনার কলম(কীবোর্ড) অক্ষয় হোক।।

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে থ্যাংক ইউ, বৈজয়ন্তী। অবান্তর আপনাকে সঙ্গ দিতে পেরেছে জেনে খুশি হলাম।

      Delete
  8. Runa.dasgupta@gmail.comSeptember 10, 2018 at 9:31 AM

    Amio Abantor e ashi Bong Mom er blog theke. Ekta "Of chalks and chopsticks" e tomar Cha korar golpo ta chhilo. Tarpor ar pherot jai ni. Amar offline bondhu Bimbabati r blog er khobor o ekhanei peyechhi. Ar peyechhi kichu ekrokom bhalobasha

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ, রুণা। হ্যাঁ ওই গল্পটার কথা আমারও মনে আছে।

      Delete
  9. Abantor ke jonmodiner shubhechcha!

    Kon pothe eshechhilam mone nei, kintu amar pora prothom Abantor post chhilo cigarette khawa bishoyok, ebong kano bangali mohilara cigarette pipasu purushder bishesh pochhondo koren.

    Porar por realize korechhilam je sotti sotti jeebone jader jader preme porechhi, tara sobai cigarette kheten/khan.

    Eirom knatay knatay sobkichu mile jawar por ar Abantor chhere kotthao jaini. :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. হাহা, ওই পোস্টটার কথা মনে আছে, বিম্ববতী। ভালোই করেছিলাম লিখে, তোমাকে বন্ধু হিসেবে পাওয়া গেল।

      Delete
  10. Amar mone hocche last year o Obantor ke ami birthday wish korechilam. Ebareo korchi. Porer bar korte parbo ei asha rakhchi. Jeebon ta bodhoy thikthak e cholche tai na. Touchwood.

    ReplyDelete
    Replies
    1. অ্যাবসলিউটলি, কুহেলি। চলছে যে সেটাই মারাত্মক ঠিক। তোমার শুভেচ্ছা পেয়ে খুশি হলাম খুব। তুমি অনেকদিনের বন্ধু।

      Delete
  11. অবান্তরকে জন্মদিনের অনেক শুভেচ্ছা।

    তোমার মাথায় নিত্যনতুন আইডিয়া গিজগিজ করুক, কিবোর্ড ধরলেই তারা বাধ্য বাচ্চার মত সুড়সুড় করে অবান্তরের পাতায় নেমে আসুক। যতদিন ততদিন। এই প্রার্থনা করি।

    ReplyDelete
    Replies
    1. হাহা, থ্যাংক ইউ, চন্দ্রচূড়।

      Delete
  12. happy birthday Abantor..aamar kache Abantor er sobcheye boro akorshon holo khaoar porer mukhshudhdir moto.s.aradin jotoi chobbo chossho gili na keno ekbar avbantor er book mark e click na korle ki nei ki nei hoy..ar porpor dudin jodi dekhi ager post tai joljhol tokhon keno nei keno nei..kintu kuch poroa nei bole oi noy bochor ager post gulo arekbar refresh kore pore ni...Abantor amake firiye diyeche goto doshok dhore khuje chola ishkul er idol ke..jar oi puru kacher lens ar modhye diye jhikiye otha ekjora buddhi dipto chokh ar ek gaal hashir moto "bapi bari ja shot e amar moto onekei ghayel hoyechilen..kuntala banerjee ke honye hoye khujte giye abantor er lekhikake khuje peyechilam ek modhyoratre..ar tokhon thekei abantor shobdotar manetai bodle gelo...(BTW jara ei bhodromohilar gaan shonen ni tara ki miss korechen seta bolai bahulyo bujhiye dite parbo na)...Abantor, asha korchi half century er dineo jhapsa chokhe ar norbore date hashi fotanor jonyo bohal tobiyote thakbe..ar boss, amrao achi thakbo pata jure..comment er khata jure...

    ReplyDelete
    Replies
    1. সর্বনাশ, পারমিতা, তুই আমার এইরকম গম্ভীর ইমেজে বাপিটাপির পেরেক পুঁতবি দেখছি। তোকে কমেন্টে প্রথমবার দেখে আমিও বিস্মিত এবং আহ্লাদিত হয়েছিলাম। শুভেচ্ছার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আমিও আশা করি অবান্তর তোর সঙ্গে আর তুই অবান্তরের সঙ্গে থাকবি আগামী দিনে।

      Delete
  13. আমি মাত্র কয়েকমাস আগে এই গুপ্তধনের সন্ধান পেয়েছি আর এরই মধ্যে রোজ অবান্তরের পাতায় ঢু (চন্দ্রবিন্দু দিতে পারছি না) মেরে যাওয়া আমার অভ্যেসে দাঁড়িয়েছে | আম্মার তরফ থেকে অবান্তরকে প্রথমবার জন্মদিনের অনেক অনেক শুভেচ্ছা আর ভালবাসা জানালাম|

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ, ময়ূরী। তোমার করা কমেন্ট পড়ে আমি অনেক পুরোনো অবান্তরের পোস্ট দেখি যেগুলো নিজেরই ভালো করে মনে নেই। অবান্তরের নতুন বন্ধু হওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ, আশা করি বন্ধুত্ব দীর্ঘজীবী হবে।

      Delete
  14. Abantor er jonmodine onek onek shubheccha janalam.
    Abantor er aaro sribriddhi hok ei kamona kori. :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. অসংখ্য ধন্যবাদ, অরিজিত। আপনার বন্ধুত্ব অবান্তর আর অবান্তরের মালিক দুজনের কাছেই আদরণীয়।

      Delete
  15. baar baar yeh din aaye, baar baar yeh dil gaaye, tum jiyoh hazaron saal....ityadi. jokes apart, abantor choluk. onek bochhor dhore porchhi, aro aro porte chai, aro mochotkar chhobi-chhaba chai. bhalo thekeo malik ar abantor dujonei.

    ReplyDelete
    Replies
    1. অসংখ্য ধন্যবাদ, প্রিয়াঙ্কা। তুমি সত্যিই অনেকদিনের বন্ধু।

      Delete
  16. একটু দেরী করে শুভেচ্ছা জানাই অবান্তরকে। অবান্তরের কাছে আমি কৃতজ্ঞ ।
    আর অবান্তর কেন ভালো লাগে? এরকম স্বাদু ঝরঝরে সেই অর্থে স্মার্ট দেখাতে চাওয়া না ...এমন লেখাকে ভালোনা বেসে পারা যায় না।
    অবান্তর দীর্ঘজীবী হোক।

    ReplyDelete
    Replies
    1. শুভেচ্ছার জন্য অনেক ধন্যবাদ, প্রদীপ্ত। তুমিও অনেকদিনের বন্ধু।

      Delete
  17. দারুন সব লেখা।যা প্রেরণা দেয়। বলে স্বাধীনতা মানে যখন খুশি আমি মাথা ব্যথার ওষুধ কিংবা ম্যাগি খেতে পারি!আবার কখনো জানিয়ে দেয় এক আলমারি বই ড্রয়িং রুমে বাঁকুড়ার একজোড়া ঘোড়া থেকেও অনেক দামি।আবার ভরসা জোগায় ব্রেকাপ -এর মত কঠিন পরিস্থিতি তেও।এখানে এসে তালাচবি র কথা পরে আমিও বেড়াতে গিয়ে হোটেল এর লক নিয়ে সাবধানে পা ফেলি।এরকম যে কত কিছু বিয়েবাড়ী থেকে পারলৌকিক,কল্পনা থেকে বাস্তব ---- বলে শেষ করা সম্ভব নয়।দশ বছরের পথ চলা কম নয় কিন্তু। আরো ভালো ভালো মন ভালো করে দেওয়া লেখার আশায় রইলাম ।শুভ জন্মদিন অবান্তর।

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ। খুব ভালো লাগল শুভেচ্ছা পেয়ে।

      Delete
  18. Janmodiner oneeek subhechha.ekhon to Abantor Amar meyeo pore, or nesha dhorlo boita porar por theke . Ami Kobe esechhilam r kibhabe sekotha ekhon r Mone porena ... - Ichhadana

    ReplyDelete
    Replies
    1. ধন্যবাদ, ইচ্ছাডানা। আপনি অবান্তরের অনেক পুরোনো আর আদরের বন্ধু। খুব ভালো লাগল আপনার শুভেচ্ছা পেয়ে।

      Delete
  19. দেরিতে হলেও বলছি, কারণ না বলাটা আরও অন্যায় হবে। অবান্তরের জন্য জন্মদিনের অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল। সেই শুরুর কিছুদিন পর থেকেই আমিও আছি অবান্তরের সঙ্গে। আশা করি মাঝে-মধ্যে ফাঁক পড়লেও চিরকাল থাকতে পারব।

    ReplyDelete
  20. Shubho Janmadin Abantor. Aro onek boro hoye otho. :)

    ReplyDelete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.