April 08, 2014

কুইজঃ তিলুবাবু (উত্তর প্রকাশিত)



উৎস গুগল ইমেজেস

আজকের কুইজ আমাদের সকলের প্রিয় তিলুবাবুকে নিয়ে। তিলুবাবুকে অবান্তরের পাঠকরা হাতের তালুর মতোই চেনেন, কাজেই আমি আশা করছি সকলে দশে দশ পাবেন। সময় দিলাম চব্বিশ ঘণ্টা। কমেন্ট মডারেশন চালু করলাম ততক্ষণের জন্য। দেশে উত্তর বেরোবে বুধবার বেলা বারোটায়, নিউ ইয়র্কে মঙ্গলবার রাত আড়াইটেয়। টাইমিংটা একটু বেয়াড়া হয়ে গেল, অ্যাডজাস্ট করে নেবেন দয়া করে।

অল দ্য বেস্ট।

*****

১। তিলুবাবুর দাদুর নাম
ক) ত্রিলোকেশ্বর শঙ্কু
খ) ত্রিপুরেশ্বর শঙ্কু
গ) বটুকেশ্বর শঙ্কু

২। নিউটন, প্রহ্লাদ ও বিধুশেখরকে নিয়ে তিলুবাবু যখন মঙ্গলগ্রহ অভিযানে যাচ্ছিলেন তখন রকেটে বসে বসে বিধুশেখর তার যান্ত্রিক গলায় একটা গান গাইত ‘ঘঙো ঘাংঙ কুঁক্ক ঘঙা আগাঁকেকেই ককুং খঙা।’ গানটা চিনতে পারছেন?

৩। তিলুবাবুর ওজন
ক) পঞ্চাশ কেজি পঞ্চান্ন গ্রাম
খ) এক মণ এগারো সের
গ) একশো দশ পাউন্ড

৪। ম্যাকাও পাখিকে গুপ্তচর হিসেবে পাঠিয়ে তিলুবাবুর আবিষ্কৃত অদৃশ্য হওয়ার ফর্মুলা চুরি করিয়েছিলেন যে দুষ্টু বিজ্ঞানী তাঁর নাম
ক) গজানন তরফদার
খ) পুরন্দর পুরকায়েত
গ) অবিনাশচন্দ্র মজুমদার

৫। হং কং-এর যাদুকর চী-চিং এসে তিলুবাবুর দেওয়ালের ‘তিকিতিকি’কে সাময়িক ভাবে যে প্রাণীতে রূপান্তরিত করেছিলেন সেটি হল
ক) মানুষখেকো বাঘ
খ) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন
গ) আগুনখেকো বিপ্লবী

৬। রোবট-মানুষ রোবুকে বানাতে তিলুবাবুর খরচ পড়েছিল মোটে (যদিও সস্তায় সারতে গিয়ে রোবুর চোখ ট্যারা হয়ে গিয়েছিল, যেটাকে ব্যালেন্স করতে গিয়ে তিলুবাবু রোবুর মুখে একটা হাসি দিয়ে দিয়েছিলেন। অঙ্ক যতই শক্ত হোক না কেন, রোবুর মুখ থেকে সে হাসি কক্ষনও মেলাত না।)
ক) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা
খ) দুশো বাইশ টাকা বাইশ আনা
গ) পাঁচশো পঞ্চান্ন টাকা পনেরো আনা

৭। তিলুবাবু অসংখ্য আবিষ্কার করেছেন সারাজীবনে। তার মধ্যে এমন একটি আবিষ্কার ছিল যা তাঁর বেড়ালের ‘ম্যাও’-এর মানে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করে দিতে পারত। তিন রকম ‘ম্যাও’ রেকর্ড করে তিন রকম মানে পেয়েছিলেন তিলুবাবু। এক রকম ম্যাওয়ের মানে ‘দুধ চাই’, আরেকরকম ম্যাওয়ের মানে ‘মাছ চাই’ আর শেষরকম ম্যাওয়ের মানে ‘ইঁদুর চাই’। এই অনবদ্য আবিষ্কারটির নাম হচ্ছে
ক) অমনিপ্লেন
খ) শ্যাঙ্কোভাইট
গ) লিঙ্গুয়াগ্রাফ

৮। তিলুবাবুর মাথায় প্রথম পাকা চুল দেখা দেয়
ক) সাত বছর বয়সে
খ) তেরো বছর বয়সে
গ)একুশ বছর বয়সে

৯। এল ডোরাডো অভিযানে তিলুবাবু যে ভদ্রলোককে নিয়ে গিয়েছিলেন তাঁর নাম
ক) অবিনাশচন্দ্র মজুমদার
খ) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস
গ) প্রহ্লাদ

১০। তিলুবাবুর ডায়েরির লেখা ক্ষণে ক্ষণে রং বদলায়, টানলে ছেঁড়ে না, আগুন লাগলে পোড়ে না। কেবল একটি জিনিসের আক্রমণ সে সামলাতে পারে না। যার আক্রমণেই ওই মহার্ঘ ডায়েরি পঞ্চত্বপ্রাপ্ত হয়। জিনিসটি কী?

*****

উত্তরঃ
১। প্রথম উত্তরটাতেই আমাকে কান ধরে ক্ষমাপ্রার্থনা করতে হবে। তিলুবাবুর প্রপিতামহের নাম ছিল বটুকেশ্বর শঙ্কু। পিতামহের নাম আমিও জানি না। শঙ্কু নিজে ছিলেন ত্রিলোকেশ্বর, শঙ্কুর বাবা ছিলেন ত্রিপুরেশ্বর। কেয়ারলেস মিস্টেক করার জন্য অত্যন্ত দুঃখিত। (প্রোফেসর শঙ্কু ও ভূত)
২। ধনধান্যে পুষ্প ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা (ব্যোমযাত্রীর ডায়রি)
৩। খ) এক মণ এগারো সের (ব্যোমযাত্রীর ডায়রি)
৪। ক) গজানন তরফদার (প্রোফেসর শঙ্কু ও ম্যাকাও)
৫। খ) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন (প্রোফেসর শঙ্কু ও চী-চিং)
৬। ক) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা (প্রোফেসর শঙ্কু ও রোবু)
৭। গ) লিঙ্গুয়াগ্রাফ (প্রোফেসর শঙ্কু ও রক্তমৎস্য রহস্য)
৮। খ) তেরো বছর বয়সে (স্বপ্নদ্বীপ)। তেরো বছর বয়সে তিলুবাবুর প্রথম চুল পাকা দেখা যায়, সতেরো বছরে টাক পড়তে শুরু করে, একুশ পড়তে না পড়তে মাথাজোড়া টাক। তারপর পঁয়তাল্লিশ বছর ধরে শঙ্কুর চেহারা একটুও পালটায়নি।
৯। খ) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস (নকুড়বাবু ও এল ডোরাডো)
১০। ডেঁয়ো পিঁপড়ের কামড় (ব্যোমযাত্রীর ডায়রি)


41 comments:

  1. ১। তিলুবাবুর দাদুর নাম
    গ) বটুকেশ্বর শঙ্কু

    ২। ধনধান্য পুষ্পভরা

    ৩। তিলুবাবুর ওজন
    খ) এক মণ এগারো সের

    ৪। ম্যাকাও পাখিকে গুপ্তচর হিসেবে পাঠিয়ে তিলুবাবুর আবিষ্কৃত অদৃশ্য হওয়ার ফর্মুলা চুরি করিয়েছিলেন যে দুষ্টু বিজ্ঞানী তাঁর নাম
    ক) গজানন তরফদার


    ৫। হং কং-এর যাদুকর চী-চিং এসে তিলুবাবুর দেওয়ালের ‘তিকিতিকি’কে সাময়িক ভাবে যে প্রাণীতে রূপান্তরিত করেছিলেন সেটি হল
    খ) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন

    ৬। রোবট-মানুষ রোবুকে বানাতে তিলুবাবুর খরচ পড়েছিল মোটে (যদিও সস্তায় সারতে গিয়ে রোবুর চোখ ট্যারা হয়ে গিয়েছিল, যেটাকে ব্যালেন্স করতে গিয়ে তিলুবাবু রোবুর মুখে একটা হাসি দিয়ে দিয়েছিলেন। অঙ্ক যতই শক্ত হোক না কেন, রোবুর মুখ থেকে সে হাসি কক্ষনও মেলাত না।)
    ক) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা

    ৭। তিলুবাবু অসংখ্য আবিষ্কার করেছেন সারাজীবনে। তার মধ্যে এমন একটি আবিষ্কার ছিল যা তাঁর বেড়ালের ‘ম্যাও’-এর মানে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করে দিতে পারত। তিন রকম ‘ম্যাও’ রেকর্ড করে তিন রকম মানে পেয়েছিলেন তিলুবাবু। এক রকম ম্যাওয়ের মানে ‘দুধ চাই’, আরেকরকম ম্যাওয়ের মানে ‘মাছ চাই’ আর শেষরকম ম্যাওয়ের মানে ‘ইঁদুর চাই’। এই অনবদ্য আবিষ্কারটির নাম হচ্ছে
    গ) লিঙ্গুয়াগ্রাফ

    ৮। তিলুবাবুর মাথায় প্রথম পাকা চুল দেখা দেয়
    খ) তেরো বছর বয়সে

    ৯। এল ডোরাডো অভিযানে তিলুবাবু যে ভদ্রলোককে নিয়ে গিয়েছিলেন তাঁর নাম
    খ) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস

    ১০। পিঁপড়ে

    ReplyDelete
    Replies
    1. ওয়াহ ওয়াহ কেয়া বাত কেয়া বাত সৌগত। সব ঠিক, সবার ফার্স্ট। অনেক হাততালি আর অভিনন্দন।

      Delete
  2. ১. বটুকেশ্বর শঙ্কু.

    ২. এক মণ এগারো সের

    ৩. ধনধান্যপুষ্প ........

    ৪. গজানন তরফদার

    ৫. অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন

    ৬. তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা

    ৭. লিঙ্গুয়াগ্রাফ

    ৮. ২১ বছর বয়েসে (এটা নিশ্চিত নই)

    ৯. নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস

    ১০. পিঁপড়ে

    ReplyDelete
    Replies
    1. বাঃ বাঃ, দারুণ খেলেছ অদিতি, আরে একুশ বছরে তো আমারই চুল পেকে গিয়েছিল, শঙ্কুর পাকবে কী? খেলার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ আর এত ভালো খেলার জন্য অনেক অভিনন্দন।

      Delete
  3. ১) ত্রিপুরেশ্বর শঙ্কু। (ভুলে গেছি, "প্রোফেসর শঙ্কু ও ভূত"?)
    ২) ধনধান্যপুষ্পভরা। ("ব্যোমযাত্রীর ডায়রি")
    ৩) এক মণ এগারো সের ("ব্যোমযাত্রীর ডায়রি")
    ৪) গজানন তরফদার ("প্রোফেসর শঙ্কু ও ম্যাকাও")
    ৫) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন ("প্রোফেসর শঙ্কু ও চী-চিং")
    ৬) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা ("প্রোফেসর শঙ্কু ও রোবু")
    ৭) লিঙ্গুয়াগ্রাফ ("প্রোফেসর শঙ্কু ও রক্তমৎস্য রহস্য")
    ৮) সাত বছর বয়সে ("স্বর্ণপর্ণী"?)
    ৯) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস ("নকুড়বাবু ও এল-ডোরাডো")
    ১০) ডেঁয়ো পিঁপড়ে ("ব্যোমযাত্রীর ডায়রি")

    ReplyDelete
    Replies
    1. প্রথম প্রশ্নটাই ভুল ছিল, কাজেই সেটা বাদ। আর সেটা (আর সাত বছর বয়সটা ) বাদ দিলে বাকিটা পারফেক্ট। কনগ্র্যাচুলেশনস।

      Delete
  4. শঙ্কু কুইজ যে, দারুন তো! (বাই দা ওয়ে, বাবু দা যে এনার দিকেও হাত বাড়িয়েছেন সেটা জানো তো? :( )
    ১। গ) বটুকেশ্বর শঙ্কু (আন্দাজ)

    ২। আজ্ঞে হ্যা, ধন-ধান্যে পুষ্পে ভরা

    ৩। খ) এক মণ এগারো সের (?)


    ৪। ক) গজানন তরফদার

    ৫। খ) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন
    (আগুন-খেকো বিপ্লবী টা কিন্তু ফাটাফাটি। এটা লিখলে বেশি ড্রামাটিক হত গল্প টা নো ডাউট।)

    ৬। ক) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা
    পুরো ভুলে গেছি। কিন্তু মার্স মিশন এর চেয়ে যে কম সেটা শীওর :)

    ৭। গ) লিঙ্গুয়াগ্রাফ
    কর্ভাস না? দারুন গল্প টা।

    ৮। খ) তেরো বছর বয়সে


    ৯। খ) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস


    ১০। এ তো শুরুর ব্যোম-যাত্রীর ডায়েরি তেই ছিল। একদম মনে পরছে না, যাহ!উই কি?

    ReplyDelete
    Replies
    1. শঙ্কুর রোলে কে করবে? শুভাশিস? তোমার বেশিরভাগ উত্তরই ঠিক হয়েছে স্বাগতা, খালি সোর্স চিনতে মাঝে মাঝে ভুল হয়েছে। যাক গে, সেগুলো তো কুইজের অংশ ছিল না, কাজেই নো চিন্তা। অনেক অভিনন্দন।

      Delete
    2. শঙ্কুর রোলটা ধৃতিমান করবেন শুনেছি।

      Delete
  5. ত্রিপুরেশ্বর শঙ্কু
    ধনধাণ্য পুষ্পে ভরা ..
    এক মণ এগারো সের (?)
    পুরন্দর পুরকায়েত (?)
    অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন -- আগুনখেকো বিপ্লবী (seriously?)
    তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা (?)
    লিঙ্গুয়াগ্রাফ
    তেরো বছর বয়সে
    অবিনাশচন্দ্র মজুমদার
    সর্বভুক পিপিলিকা

    --
    সব্যসাচী

    ReplyDelete
    Replies
    1. বাঃ বাঃ, বেশিরভাগই ঠিক সব্যসাচী। অভিনন্দন। খেলার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

      Delete
  6. কয়েকটা আন্দাজে সারলাম, কিন্তু কি আর করা যাবে।
    ১। (গ) বটুকেশ্বর শঙ্কু
    ২। ধন ধান্য পুষ্প ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা।
    ৩। (খ) এক মণ এগারো সের
    ৪। (ক) গজানন তরফদার
    ৫। (খ) অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন
    ৬। (ক) তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা
    ৭। (গ) লিঙ্গুয়াগ্রাফ
    ৮। (ক) সাত বছর বয়সে
    ৯। (খ) নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস
    ১০। পিপড়ে

    আপনার জন্য একটা বোনাস প্রশ্ন (সৌজন্যে সুমনা): তিলুবাবুর কোন গল্পে চেম্বার অফ সিক্রেটস থেকে বেরোনো বাসিলিস্ক এর উল্লেখ আছে?

    ReplyDelete
    Replies
    1. aschorjo dwip golpe guha theke berono adim manob (asole bonyo hoye jawa jolodosyu) chilo mone porche.. basilisk ta ki case? :O

      Delete
    2. ওটা তো 'একশৃঙ্গ অভিযান'-এ আছে, যেখানে রূপকথার সব জীবজন্তুদের দেখা মিলেছিল!

      Delete
    3. এটা সেই মামির গল্পে আছে না? সেই যে মিশরের পাগলাটে লোকটার মামি ঘাড়ে করে গিরিডি নিয়ে এসেছিলেন শঙ্কু যে গল্পে?

      Delete
    4. না না পিয়াসের উত্তরটাই ঠিক, ওটা একশৃঙ্গ অভিযানেই আছে।

      Delete
  7. এত্ত তাড়াতাড়ি 'শঙ্কুইজ'টা বানিয়ে ফেলবেন ভাবতেই পারিনি ...

    ১। বটুকেশ্বর শঙ্কু (এটা নিয়ে একটু সন্দেহ আছে। বটুকেশ্বর তো অতি প্রাচীন কোন পূর্বপুরুষ ছিলেন মনে হচ্ছে।)

    ২। ধনধান্য পুষ্পভরা আমাদের এই বসুন্ধরা

    ৩। এক মণ এগারো সের

    ৪। গজানন তরফদার

    ৫। অ্যাসিডখেকো ড্র্যাগন (শেষের অপশনটা দেখে হাসতে হাসতে যা তা অবস্থা )

    ৬। তিনশো তেত্রিশ টাকা সাড়ে সাত আনা

    ৭। লিঙ্গুয়াগ্রাফ

    ৮। তেরো বছর বয়সে

    ৯। নকুড়চন্দ্র বিশ্বাস

    ১০। পিঁপড়ে

    ReplyDelete
    Replies
    1. হে হে। প্রপিতামহও নয়, অতিবৃদ্ধ প্রপিতামহ হবে। বই চেক করে দেখলাম। আমার বোনাস পয়েন্ট চাই! :-)

      Delete
    2. ঠিক ঠিক, আচ্ছা তোমাকে দশে এগারো দিলাম পিয়াস। কনগ্র্যাচুলেশনস। বটুকেশ্বর নিয়ে সন্দেহটা ঢুকিয়ে দেওয়ার জন্য থ্যাংক ইউ। না হলে আমার ভুলটা ভাঙত না। আর শঙ্কুইজের আইডিয়া দেওয়ার জন্য তো বটেই। ব্যোমকুইজের ব্যাপারটাও মাথায় রেখেছি, দেখা যাক কবে হয়।

      Delete
    3. ব্যোমকুইজ তো বটেই, ফেলুকুইজ আর শঙ্কুইজের আরো সিকুয়েল চাই। এটা তো শুধু গোড়ার দিকের গল্পগুলো নিয়েই ছিল!

      Delete
    4. হাহাহা, এইটা ভালো ধরেছ পিয়াস। আরে স্ক্রোল করতে করতে আঙুল ব্যথা হয়ে যাচ্ছিল বলে শুরুর দিকের গপ্প থেকেই প্রশ্ন করে ছেড়ে দিয়েছি।

      Delete
  8. Replies
    1. থাম্বস্‌ আপ, সৌরাংশু।

      Delete
  9. এ হে হে হে - প্রকাশিত উত্তরেও তো ভুল রয়ে গেল । গানটা । উত্তরদাতারা কিন্তু একজন বাদ দিয়ে সবাই ঠিক লিখেছে। এরকম একখানা গানের লিরিক ভুলের শাস্তি কি?

    শ্রী কাকেশ্বর কুচকুচে

    ReplyDelete
    Replies
    1. aapni kakeshwar, pencil bagiye hiseb kore shasti r nogod mulyo ta apni i bole din, ami o bhul korechi kina :(

      Delete
    2. (মনে মনে ভেবে নিন দুলে দুলে বলছি) কুন্তলা নেক্সট দু সপ্তাহে দুখানা - আচ্ছা কম করে একখানা ফিকশন লিখলে তবে পাপস্খালন হবে । আর স্বাগতার পাপমুক্তি হবে এই প্রস্তাবে অকুন্ঠ সমর্থন জানালে!

      ল্যাপটপ নিয়ে কুন্তলার জন্য অনেক সমবেদনা রইলো । আমি পা দিইনি, তবে কি-বোর্ডের উপরে স্পাইরাল বাইন্ডিং খাতা রেখেছিলাম । পরে ঘুমের ঘোরে ফ্ল্যাপটা বন্ধ করতেই অবিকল আপনার মত এক স্ক্রিনসেভার :( স্ক্রিন চেঞ্জ করতে খরচা অনেক - তাই আমি করেছিলাম কি - একটা ওয়ারলেস মাউস আর কি-বোর্ড কিনেছিলাম । দিয়ে ল্যাপটপটা একটা ভিজিএ কেবল দিয়ে টিভির সঙ্গে লাগিয়ে রাখতাম - ব্যাস বত্তিরিশ ইঞ্চি ল্যাপটপ ।

      শ্রী কাকেশ্বর কুচকুচে

      Delete
    3. শ্রী কাক্কেশ্বর, আমি তো বলি তিনমাসের জেল আর সাতদিনের ফাঁসির কম কিছু হওয়া উচিত নয়। তবে আমি জানতাম কোনও না কোনও সচেতন পাঠক আমার ভুল ধরিয়ে দেবেন, তবু অথেনটিসিটি রক্ষার খাতিরে বইয়ে যা লেখা আছে, সেটাই লিখেছিলাম। শঙ্কু সমগ্র, এগারো পাতা, সাত ও এগারো নম্বর লাইন। এ'রকম একখানা গানের লিরিক ভুলের জন্য, তাও আবার সত্যজিৎ রায় হয়ে, আমার মতে নিদেনপক্ষে ওঁর অস্কারটা কেড়ে নেওয়া উচিত।

      টিভি দিয়ে কম্পিউটারের কাজ চালানোর আইডিয়াটা খুবই ভালো। তবে আমার আবার শুয়ে শুয়ে ইউটিউব দেখা অভ্যেস। টিভিটাকে সেটা করা একটু অসুবিধে।

      আপনার ফিকশনের দাবিটা মাথায় রাখলাম, দেখা যাক কদ্দূর কী করা যায়।

      Delete
    4. fiction er daabi amar torofeo.. discount kore akta korle hobe na, kakeswar er hiseb, du hoptay pakka du khana chai :)

      Delete
    5. অনেক কাল চর্চা না থাকায় শঙ্কুর ব্যাপারস্যাপারগুলো ভুলেই গিয়েছিলাম অনেকটা। ভালই হল, আজ থেকে 'শঙ্কুসমগ্র' পড়া আরম্ভ করেছি। :)

      Delete
    6. Ami o .... Chupi chupi uttargulo dekhey pdf er sathey miliye nichhi ...lok jon dekhi bhul kortei bhule gechhey... Bhoyankar sob pathok Abantor er !!

      Delete
    7. এই সুযোগে আমারও শঙ্কু সমগ্রে চোখ বোলানো হয়ে গেছে। আর আত্মদীপের সঙ্গে অবান্তরের পাঠকদের ব্যাপারটায় হাই ফাইভ।

      Delete
    8. দেখুন কান্ড! আমার শঙ্কু সমগ্রে তো গানটা ঠিকই আছে! গোড়ার দিকের কোন এডিশনে হয়তো 'আনন্দ'ই ওটা ছড়িয়েছিল।

      Delete
  10. হল না....হল না। প্রশ্নের গানের লিরিক তো ঠিক-ই আছে ।

    মানে রোবো বলে কথা - একেবারে ঠিকঠাক-ই গেয়েছে । তাই অস্কার কেড়ে নেবার কোনো প্রশ্নই নেই । উত্তরের গানের লিরিক ভুল । আর হেঁ হেঁ .. বলছি কি অরিজিনাল গানের লিরিকে এরকম একখানা ভুল তো মেনে নেয়া যায় না ... বিদ্যেসাগর মশাই বেঁচে থাকলে বলতেন 'একার বদলে এসো মা ' ...

    শ্রী কাকেশ্বর কুচকুচে
    রেগে গিয়ে কুন্তলা নিয্যস এখন শাপমন্যি করছে :(

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে না না , শাপমন্যির কোনও ব্যাপারই নেই। ভুল ধরিয়ে দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ কাক্কেশ্বর।

      Delete
    2. 'নকুড়বাবু ও এল ডোরাডো' গল্পে দেখা যাচ্ছে যে শঙ্কুর ঠাকুরদার নাম বটুকেশ্বর, যিনি কিনা শ্রুতিধর ছিলেন।

      অন্যদিকে, 'প্রোফেসর শঙ্কু ও ভূত' গল্পে দেখা যাচ্ছে যে শঙ্কুর অতিবৃদ্ধ প্রপিতামহের নাম বটুকেশ্বর শঙ্কু।

      বেশ ইয়ে ব্যাপার!

      Delete
    3. দেখেছেন, আমি গোড়াতে কেমন ভুল করে ঠিক প্রশ্ন দিয়েছিলাম। তবে আপনি যে ব্যাপারটা খেয়াল করে এসে বললেন, সে জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ অরিজিত।

      Delete
    4. এর থেকে এটাই বোঝা যায় যে তিলুবাবুর অনেক গুন থাকলেও, তিনি তাঁর পূর্বপুরুষের স্মৃতিশক্তিটা পাননি।

      Delete
    5. হাহা, ট্রু ট্রু।

      Delete
  11. এই কুইজটার পরেই তো 'শঙ্কুসমগ্র' টা শুরু করেছিলাম। আজ এল ডোরাডোয় এসে পৌঁছেছি।

    তাই একটা ধন্যবাদ আপনারও প্রাপ্য। :)

    ReplyDelete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.