July 09, 2014

আমার স্বপ্নের ফাইনালঃ Deutschland vs. Greece





22 comments:

  1. Eita durdanto.........

    ReplyDelete
    Replies
    1. যতবার দেখছি ততবার হেসে গড়াচ্ছি, সৌগত। বেকেনবাওয়ার কেমন কোমরে হাত দিয়ে দাঁড়িয়ে হতভম্বের মতো এদিকওদিক তাকাচ্ছেন খেয়াল করেছেন?

      Delete
    2. Abashyai........bechara bujhtei parlen na je taNr ki kora uchit.........Referee r choice ta marattok......ar last minute e Karl Marx r entry tao......

      Delete
    3. হ্যাঁ। মার্ক্সের প্রচণ্ড তেড়েফুঁড়ে মাঠে নামন এবং অচিরেই বাকিদের মতোই জড়ভরত স্ট্যাটাস পাওনের মধ্যে একটা সিম্বলিক ব্যাপার আছে কিন্তু।

      Delete
  2. ভিডিওটা ভালো
    কাল রাতের জন্য সমবেদনা রইল

    ReplyDelete
    Replies
    1. সে কী, আমার জন্য আবার বেদনাটেদনা কেন দেবাশিস, আমি তো পাঁড় জার্মানি! সেই ছ'বছর বয়স থেকেই।

      Delete
    2. অ্যাঁ? সেদিন যে বললেন ব্রাজিলকে জেতাবার জন্য আপনি আর বাবা দুদিন উপোস করে থাকতে পারবেন?
      দল বদলালেন কবে? টুর্নামেন্টের মাঝখানে দল বদলানো যায় না কিন্তু!

      Delete
    3. ওকে, আবার পড়লাম। "ব্রাজিল থেকেও জার্মানি জিতলে আমার বেশি আনন্দ হয়"। পয়েন্ট টেকেন।
      তাহলে কাল রাতের জন্য অভিনন্দন রইল

      Delete
    4. "হলুদসবুজ ছিল বাবার জিয়নকাঠি। এখনও আছে। বাবাকে যদি কেউ বলে আপনি একদিন না খেয়ে থাকলে ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতবে, তাহলে বাবা গোটাদিন নির্জলা উপোস দেবেন।

      আর কেউ যদি বলে আপনি একদিন না খেয়ে থাকলে আর্জেন্টিনা হারবে, তাহলে বাবা লাফিয়ে উঠে বলবেন, আমি দেড়দিন না খেয়ে থাকলে কি ওরা গোহারা হারবে? তাহলে না হয় দেড়দিনই থাকব।"

      "বাবার সঙ্গে আমার অমিলটা হল যে ব্রাজিলের থেকেও জার্মানি জিতলে আমার আনন্দ বেশি হয়, আর বাবার সঙ্গে আমার মিলটা হল যে আর্জেন্টিনা হারলে আমার বাবার মতোই দু’হাত তুলে নাচতে ইচ্ছে করে।"

      http://abantor-prolaap.blogspot.in/2014/06/blog-post_17.html

      ভাগ্যিস, প্রমাণ ছিল।

      Delete
    5. থ্যাংক ইউ, দেবাশিস।

      Delete
  3. Daroon video. Kal raater shok ektukhoner jonyo-o bhule gelam. Tomar babar jonyo somobedona roilo Kuntala. :-(

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ, বিম্ববতী। বাবাকে বলে দেব। আমি ভয়ে বাবাকে ফোন করতে পারিনি। মাকে জিজ্ঞাসা করলাম, বাবার অবস্থা কী, তাতে মা বলল, কাল রাত নিয়ে কোনও কথাই বলতে চাইছে না, খালি বলছে, 'যেন হল্যান্ড জেতে, যেন হল্যান্ড জেতে।'

      Delete
  4. Replies
    1. আর্কিমিডিসের 'ইউরেকা!' বলে চিৎকার এবং তার পরের দৌড়টা দেখলি?

      Delete
  5. আর্কিমিডিস যে জামাকাপড় খুলে দৌড়ননি এই ভাগ্যি! ফাইনালে তাহলে আমার টীম বনাম আপনার টীম। দেখা যাক কি হয়।

    ReplyDelete
    Replies
    1. দেখা যাক, দেখা যাক। আমার অবশ্য হল্যান্ডের (জানি নেদারল্যান্ড কথাটা ঠিক, কিন্তু হল্যান্ড শব্দটা এমন রক্তেমজ্জায় ঢুকে গেছে...) জন্য হৃদয়বেদনা এখনও কাটেনি। তবে এই ফাঁকে একটা কথা স্বীকার করে নিই, আমার আপনার টিমকে অকথ্যরকম খারাপ লাগলেও, আপনাদের অধিনায়ককে আমার বেশ পছন্দ। মেসির চেহারার মধ্যে একটা বেশ শান্তসৌম্য ভাব আছে, যেটা আমার বড্ড ভালো লাগে। আমাদের বাড়িতে একটা মেসির পোস্টারও আছে, টাঙাইনি ঠিকই, কিন্তু প্রাণে ধরে ফেলতেও পারিনি।

      Delete
    2. আমার দাদার মতে মেসিকে ব্যান্ডেল-হাওড়া লাইনের ডেলি-প্যাসেঞ্জারের মতন দেখতে। :-)

      Delete
    3. ওই জন্যই তো আমার এত পছন্দ।

      Delete
  6. Replies
    1. ঠিক ঠিক, ইচ্ছাডানা।

      Delete
  7. ha ha .. ho ho ...
    Eta ami etow din dekhi e ni ..asole oi halud sobuj orang otaung gulor khala dekhe mejaj emon kharap hoye gechhilo .. tokhon ar kichhui temon bhalo lagchhilo na..
    Eta kintu just khorak ...
    Amar sobtheke bhalo legechhey referee er hather ghori ta ar karl marks er lal jama pore warm up ...
    -- Atmodip

    ReplyDelete
    Replies
    1. সিরিয়াসলি আত্মদীপ। ইন্টারনেটে সত্যিইইইই হাসির জিনিস যে একটাআধটা থাকে তাদের মধ্যে এটা একটা। কার্ল মার্কসের ওয়ার্ম আপের জবাব নেই, ঠিকই বলেছেন।

      Delete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.