May 17, 2012

হাতে নাতে





তথ্যসূত্রঃ এক্সপ্লোরনিউ ইয়র্ক টাইমস

শুক্রবারের আড্ডার সমাধান না হওয়া বহু বিতর্কের মধ্যে একটা বিতর্ক হল, মানুষের প্রজনন ঋতু, অর্থাৎ মেটিং সিজন আছে না নেই। বুঝতেই পারছেন, আমরা বৈজ্ঞানিক তথ্যপ্রমাণাদি নিয়ে মাথা ঘামাই না,  স্রেফ পর্যবেক্ষণ দিয়ে কাজ চালাই। বান্টির, আমার আর সুদীপ্তর বিশ্বাস, কুকুর, বেড়াল, প্রজাপতির মতো মানুষেরও মেটিং সিজন আছে, না থাকার কোন কারণই নেই। ওদিকে সীবলি, সোমা, চিরু, যারা একটু ভালোমানুষ গোছের, তারা বলে, "ধ্যাত তোদের যত বেশি বেশি। মানুষের মোটেই ওসব নেই।"

এবার হাতে নাতে প্রমাণ হয়ে গেল তো? ওপরের চার্টটা যদিও ইউনাইটেড স্টেটসের ডেটা নিয়ে বানানো, কিন্তু আমি নিশ্চিত ভারতবর্ষের তথ্য কিছু অন্য কথা বলবে না। হ্যাঁ সিজনটা আলাদা হবে, হওয়াই স্বাভাবিক।

আমার আন্দাজের কথা যদি জানতে চান, তাহলে বলবো আমাদের দেশের (অন্তত পশ্চিমবঙ্গের) সিংহভাগ লোকের জন্মদিন ডিসেম্বরে পড়বে। তাই কিনা শম্পা? পড়াই স্বাভাবিক অবশ্য। যতই হোক, বসন্তের হাওয়ায় এখনো একটা ব্যাপার আছে।

19 comments:

  1. আমি একটা মার্কিন ওষুধ কম্পানির ডেটা নিয়ে কাজ করেছিলাম। সেখানেও দেখেছিলাম, সদ্যোজাত শিশুর প্রয়োজনীয় জিনিস সেপ্টেম্বরে সবথেকে বেশি বিক্রি হয়। বড়দিন বলে কথা!

    ReplyDelete
  2. বাঁদিকে নিচে দুটো সাদা চৌকো দেখে ঘাবড়ে গেছিলাম, তারপর দেখলাম, ওটা ফেব্রুয়ারী। :D

    ReplyDelete
    Replies
    1. একেই বলে স্ট্যাটিস্টিশিয়ান। ডেটা দেখেই ফাঁকফোকর নজরে পড়তে শুরু করেছে। যাই হোক, আমি একজনকে চিনি যার জন্মদিন ২৯শে ফেব্রুয়ারি। সে যখন রিসার্চ করছে, তখনও জন্মদিন গুনে নিজেকে "আমার তো মোটে ৬ বছর বয়স" বলে চালাত।

      Delete
  3. আছে বৈকি!!!
    মে মাসের কলকাতায় চল্লিশ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রাতে কারোর সাথে মিটিং করতেই ইচ্ছা হয়না মেটিং তো দূরের কথা

    ReplyDelete
    Replies
    1. এটাকে আমি সপ্তাহের সেরা মন্তব্যের প্রাইজ দিচ্ছি। সংহিতা, পুরস্কার হিসেবে ফুচকা আর এগরোল তোমার পাওনা রইল।

      Delete
    2. hahahaha, eta darun comment kintu :P

      Delete
  4. yo yo, ja bolechho! December e amaro birthday by the way :D

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে আরে আমাদের দল ভারি হচ্ছে। গুড গুড।

      Delete
  5. Ami dujon leap year baby der chini, tader ei year 7 holo.
    Ma ekta golpo bole ek professor tar arek professor bondhu ke invite kore boleche "tumi amar 10th birthday te esho". Onyojon bhabhcen er 10th birthday te bicycle debo na philosphy'r boi debo. Bhadrolok leap year baby!
    August eo to dekhchi bhaloi manush-jon jonmeche :D

    ReplyDelete
    Replies
    1. বাব্বা, আধখানা নয়, একখানা নয়, একেবারে দু-দুখানা লিপ ইয়ারে জন্মান লোক! নাকের সামনে হেঁটে চলে বেড়াচ্ছে!

      Delete
  6. mating season achey ki na janina, tobe bhaggish kukur beraal er moto multiple births nei. chinta koro K, je tomar 12 ta bhai bon achen.....ebong shudhu tai noy, tenara sabai motamuti eki boyesh er :)))

    ReplyDelete
    Replies
    1. সেই শম্পা, কল্পনা করতে গিয়ে একটু মাথা চুলকাতে হচ্ছে বটে।

      Delete
  7. Mating season noi Kuntala, school season. Ekhane September e beshir bhag bachcha der school er cut off date tai naki most parents chai Summer er modhye bachcha hoy jak. October hoye gelei year loss.
    Eta amar dakta er boktyobyo

    ReplyDelete
  8. Ei ar tumi na english version e fanki marcho. "ParoJonmo" kothay gelo ?

    ReplyDelete
    Replies
    1. আরে বং মম আর লজ্জা দেবেন না। সত্যি আমার ইংরিজি অবান্তরে বড় বড় ফাঁক পড়ে যাচ্ছে। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করবো ফাঁক ভর্তি করার কথা দিচ্ছি।

      যাঃ আমরা মেটিং সিজন ধরে নিয়ে কীরকম উৎসাহিত হয়ে হাসিঠাট্টা করছিলাম, আপনি তো সে উৎসাহে বরফজল ঢেলে দিলেন। স্যাড। আচ্ছা এবার খুঁজে দেখতে হবে আন-স্কুলারদের জন্মের কোন ডেটা পাওয়া যায় কিনা। আমি এই রহস্যের তল না খুঁজে থামব না, পণ করেছি।

      Delete
  9. Amar chirokal sandeho hoto September e sobcheye beshi loker janmodin... ekhon dekhchhi sotyi-i taai!

    ReplyDelete
    Replies
    1. ওহ আপনি আগেই গেস করেছিলেন?

      Delete
  10. bah bah... september to puro aga pash tola kaalo... bhari bhalo laglo dekhe !!

    ReplyDelete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.