June 14, 2012

Desiderata



আজকাল একটু ভালোমন্দ খাওয়াদাওয়া হচ্ছে কিনা--এই যেমন কাল রাতে রুটির সাথে ছিল ঝুরি ঝুরি করে কাটা আলু পেঁয়াজকলির চচ্চড়ি, ডুমো ডুমো করে কাটা ফুলকপির মাখা মাখা তরকারি, ঝাল ঝাল ডিমের ঝোল আর টমেটো আমসত্ত্বর মিষ্টি চাটনি—তাই সেসব হজম করার জন্য আমরা মা মেয়ে রোজ রাতে খেয়ে উঠে নিয়ম করে হাঁটতে বেরোচ্ছি। মানে মা খাবার হজম করার জন্য বেরোচ্ছেন, আমি ফিগার মেন্টেন করার জন্য বেরোচ্ছি। যদিও মা সেটা জানেন না। জানার দরকারও নেই।

বেশ অনেকটা হাঁটি আমরা। পার্কের গা বেয়ে বড় রাস্তায় পড়ে বাঁদিকে বেঁকে খান তিনেক ব্লক পেরিয়ে আবার উল্টোমুখো ফেরত আসি। আসবার সময় মা রোজ একটা করে নতুন গলি এক্সপ্লোর করতে চান, কিন্তু আমি রাজি হই না। জোরজার করে রোজ একটা নির্দিষ্ট গলি দিয়েই মাকে ফেরাই।

ওই গলিটার একটা বাড়ির দোতলায় একটা বাচ্চার পড়ার ঘর আছে। বাচ্চা মানে স্কুলের উঁচু ক্লাস হবে। ছেলেটার পড়ার টেবিলটা জানালার সাথে লাগানো। রাস্তা থেকে দেখা যায়। টেবিলে একটা হলুদ রঙের ল্যাম্প জ্বলে আর ছেলেটা খাতার ওপর ঝুঁকে পড়ে খসখস করে লিখে চলে। হোমওয়ার্ক করে বোধহয়। কান থেকে হেডফোন ঝোলে না, মুখের সামনে বই খুলে রেখে চেয়ারটা যতখানি পারা যায় পেছনে ঠেলে দিয়ে ঝড়ের বেগে টেক্সটিং করে না, আকাশের দিকে তাকিয়ে বোরিং মুখে চুইংগাম চিবোয়না। সমস্ত মনোযোগ আলোকিত টেবিলটার ওপর জড়ো করে ছেলেটা পড়াশোনা করে।

এই দৃশ্যটা দেখবো বলে আমি রোজ ওই রাস্তাটা দিয়ে আসি। কী যে ভালো লাগে, বলে বোঝাতে পারব না। আবছা চেনা চেনা লাগে কিন্তু স্পষ্ট মনে পড়ে না। খালি মনে হয় এরকম একটা দৃশ্য কোথায় যেন দেখেছি? কবে যেন দেখেছি? এরকম চোরের মতো জানালার বাইরে থেকেও নয়, খুব সামনে থেকে প্রত্যক্ষ করেছি। আর করেছি বলেই ছেলেটার ওই মুহূর্তের অনুভূতিটা মাথার মধ্যে কল্পনা করে নিতে আমার একটুও অসুবিধে হয়না। অনুভূতির থেকে অবশ্য অনুভূতির অনুপস্থিতি বলাই উচিত। আমি জানি ও এখন কিচ্ছু টের পাচ্ছে না। প্রেম, রাগ, হতাশা, ঈর্ষা, অভিমান। কালো কালো অসংখ্য শব্দ সংখ্যা সমীকরণ এখন ওকে ঘিরে রেখেছে। সস্নেহে আড়াল করে রেখেছে, মন এবং হরমোন, দুই আপদের থেকেই।

আঃ কী শান্তি।

আমার খুব লোভ হয় জানেন। মনে হয় ঠিক ওই ছেলেটার মতো যদি একটা রাস্তার ধারে জানালাওয়ালা পড়ার ঘর পেতাম, আর ঠিক ওইরকম একটা ল্যাম্প, আর ছেলেটা যে কম্পানির খাতায় যে ব্র্যান্ডের পেন দিয়ে লেখে সেগুলোর নাম যদি জানা যেত, তাহলে আমি সমস্ত উঞ্ছবৃত্তিকে চুলোর দোরে পাঠিয়ে আবার পড়তে বসে যেতাম। যতক্ষণ না মা পেছন থেকে এসে আলতো করে কাঁধে হাত দিয়ে খেতে ডাকছেন আর আমি ভীষণ চমকে উঠে সাদা পাতা জুড়ে কালি ছিটোচ্ছি, ততক্ষণ ওঠবার নাম করতাম না।

আপনারাও জানেন আমিও জানি টেবিল চেয়ারের অভাবে কিছু আটকাচ্ছে না। যেটা নেই, যেটা হারিয়ে গেছে চিরদিনের মতো সেটা হচ্ছে আমার মনঃসংযোগ করার ক্ষমতা। কিছু একটা নিয়ে লেগে থাকার ক্ষমতা। মোটিভেশন, ইন্সপিরেশন, প্যাশন, doing what you love---এসব ভারি ভারি শব্দবন্ধের নিচে চাপা পড়ে গেছে খুব ছোট্ট একটা কথা। পরিশ্রম।

যেটা সত্যিই, সত্যি সত্যিই বিকল্পহীন।

তবে হাহুতাশ করে লাভ নেই। করলে যদি সে ফিরত তাহলে নাহয় করার মানে হত। তাই যা গেছে তা যাক মনে করে হাত ঝেড়ে ফেলেছি। এখন শুধু চোরের মতো জানালার বাইরে থেকে চেয়ে চেয়ে দেখি। তাতে যতটুকু মন ভরে ততটুকুই যথেষ্ট।

আজকের পোস্টটা একটু ‘ফরোয়ার্ড’ মার্কা হয়ে গেল বোধহয়। কিন্তু কী করব এই কথাগুলোই মাথায় এল যে।

যেতে যেতে একটা কবিতা রইল আপনাদের জন্য। আমার খুব প্রিয় কবিতা। এই কবিতাটাও এক অর্থে ‘ফরোয়ার্ড’ কবিতা। কিন্তু সেটা আমাদের দুর্ভাগ্য, কবিতাটার নয়

Desiderata
by Max Ehrmann

Go placidly amid the noise and the haste,
and remember what peace there may be in silence.

As far as possible, without surrender,
be on good terms with all persons.
Speak your truth quietly and clearly;
and listen to others,
even to the dull and the ignorant;
they too have their story.
Avoid loud and aggressive persons;
they are vexatious to the spirit. 

If you compare yourself with others,
you may become vain or bitter,
for always there will be greater and lesser persons than yourself.
Enjoy your achievements as well as your plans.
Keep interested in your own career, however humble;
it is a real possession in the changing fortunes of time.

Exercise caution in your business affairs,
for the world is full of trickery.
But let this not blind you to what virtue there is;
many persons strive for high ideals,
and everywhere life is full of heroism.
Be yourself. Especially do not feign affection.
Neither be cynical about love,
for in the face of all aridity and disenchantment,
it is as perennial as the grass.

Take kindly the counsel of the years,
gracefully surrendering the things of youth.
Nurture strength of spirit to shield you in sudden misfortune.
But do not distress yourself with dark imaginings.
Many fears are born of fatigue and loneliness.

Beyond a wholesome discipline,
be gentle with yourself.
You are a child of the universe
no less than the trees and the stars;
you have a right to be here.
And whether or not it is clear to you,
no doubt the universe is unfolding as it should.

Therefore be at peace with God, 
whatever you conceive Him to be.
And whatever your labors and aspirations,
in the noisy confusion of life,
keep peace in your soul. 

With all its sham, drudgery, and broken dreams,
it is still a beautiful world. 
Be cheerful. Strive to be happy.

17 comments:

  1. তোমার লেখা আর তোমার পছন্দের কবিতা দুটো-ই বেশ ভালো লাগলো... :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. থ্যাঙ্ক ইউ সংহিতা।

      Delete
  2. porashona koray ami aar ferot jete raji noi... babbahh.. sei surprise test, asignments, madhyamik, H.S, Joint ar sei nie guchho bhyantara....
    tobe, sei somoykar life er simplicity ta khub lobhoniyo.. barir loker opor SOB chherechhure diye je nishchinter jibon, seta khub i kamonar hoe dariyechhe ajkal.. ar fire asbe na bujhe gechhi bolei bodhhoy aro beshi pete ichhe kore..

    ReplyDelete
    Replies
    1. হ্যাঁ হয়তো আমি ওই জীবনটার সাথে স্বস্তি ব্যাপারটাকে এক করে দেখছি বলেই আমার কাছে ওটা অত আহামরি লাগছে। সব ভার অন্যের কাঁধে, আহ।

      Delete
  3. লেখার চিন্তাটা ভালো লাগলো, কিন্তু কবিতাটা? বড্ড জ্ঞান-জ্ঞান :(
    "Avoid loud and aggressive persons;
    they are vexatious to the spirit. "-- মানে তারা (দাদুর ভাষায়) "আমাদের ক্ষেপিয়ে বেড়ায়" তো? কি আর করা যাবে... :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. সুনন্দ, ওই লাইনদুটোই আবার আমার পুরো কবিতাটার মধ্যে সবথেকে প্রিয়। শেষের দিকের বি হ্যাপি ট্যাপি গুলো বরং না থাকলেই ভালো হত টাইপ। কিন্ত লাউড লোকজন স্বাস্থ্যের পক্ষে জাস্ট ক্ষতিকর।

      Delete
  4. আমি সেই কারণেই ওই দুটো কোট করলাম... ও দু'টোই ঠিকঠাক লাইন...
    '12 angry men' সিনেমাটা দেখে এই ব্যাপারটা প্রথম ঠিক বুঝতে পারি...

    ReplyDelete
    Replies
    1. খুব ভালো সিনেমার উদাহরণ দিয়েছ সুনন্দ। চেঁচিয়ে বললেই যে কথা সত্যি হয়ে যায় না সেটা ওই সিনেমাটা এত স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দিয়েছে...

      Delete
  5. jekhanei gyan er katha sekhane "avoid loud/aggressive/toxic personalities" byapar ta eshei jay.

    kintu practical dik theke dekhte gele seta beshir bhag samay sambhab noy...karon eder madhe aneke atmiyo, aneke professional colleagues, protibeshi etc. tai ultimately puropuri avoid kora jayna...anek samay kichuta engage kortei hoy.

    tai "pursuit of happiness" anthem e "loud/aggressive avoid karo" 'r bodole ki bhabhe "handle korbe" janiye diley bodhoy beshi kaaje lagbe :))

    ReplyDelete
    Replies
    1. একদম একদম শম্পা। আমি ওরকম লোক দেখলে মুখে কুলুপ এঁটে থাকার পলিসি নিই।

      Delete
  6. Ami Bhut-er sange ekmot. HS-JEE'r faade ar porchi na! Tobe oi sondhyebela table lamp jele homework korte bosha ta joto ta na bhalo, tar cheye beshi bhalo oi boyeshe, oi sondhyegulor sange involved memory gulo. Ami oboshyo table lamp jaltam na, amader bari te ektao table lamp chhilo na. Pore dorm e amar table lamp chhilo, tobe porar table janlar samne rakhtam na (shunechi Rabindranath o erokom korten). Tobe sondhyebela bari firey homework na kora ta ami kichu miss kori na. Ekhon ami sondhyebela onek beshi relax kori, golper boi pori, na holey game khelei na to sweater/kombol sob buni :)

    ReplyDelete
    Replies
    1. আর বেড়ালের সাথে খেলা? সেটাতেও ভালো রিল্যাক্সেশন হয় নিশ্চয়?

      Delete
    2. Hm.. ekhon 2to beral, ekta pasher barir beral ar ekta machh royeche. Ar bird-feeder ar bhutta deyar fole hajar hajar pakhi and kathberali-o ashe :) Ebar ekta kukur anbo...Alipur Zoo bananor pothe cholechi :)

      Delete
  7. Sunandor sange ekmot... kobita ta gyan gyan. Loud and aggressive lokeder eRiye choli bolte bhalo lagchhe thik-i, kintu amio hoyto samay-bisheshe loud ar aggressive hoye poRi. :(
    Table-lamp jwaliye alor britter niche ami majhe majhe bosi bote, tobe seta nehat-i non-academic pursuits er jonyo. ei dhorun chhobi aNkte kimba galper boi poRte.

    ReplyDelete
    Replies
    1. যাঃ আপনারা সবাই কবিতাটাকে খারাপ বললেন। কী আর করা যাবে।

      Delete
  8. PhD shuru korar age porjonto amar besh ekta sakal bikel porte boshar abhyas chhilo. hathat kore seta mone pore gelo! Kemon jeno mone hote laglo boi, khata tene bose pori.

    ReplyDelete
    Replies
    1. আমারও ওটাই মনে হয় সর্বদা, কিন্তু কাজে আর করে ওঠা হয় না।

      Delete

 
Creative Commons License
This work is licensed under a Creative Commons Attribution-NonCommercial-NoDerivs 3.0 Unported License.